অপরাধীদের কঠোর হস্তে দমন করা আদর্শবান অফিসার ওসি মোঃ আবু সিদ্দিক

মোঃ খাইরুজ্জামান সজিব বিশেষ প্রতিনিধি

বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর দুর্দান্ত সাহসী কিছু অফিসার রয়েছে যারা তাদের সৎ সাহসকে পুঁজি করে জনগণের শান্তির জন্য দিনরাত সকল অন্যায়কে বিতাড়িত করে পুলিশ বাহিনীকে করে তুলেছেন প্রশংসিত। ঠিক তেমনি একজন মানবিক বিনয়ী, সৎ, মেধাবী ও সাহসী দায়িত্বশীল
পুলিশ অফিসার হলেন গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের বাসন থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি)
মোঃ আবু সিদ্দিক। একজন ওসি থানা এলাকার আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ সহ তার দায়িত্ব শতভাগ সফল ভাবে পালন করেও যে, আন্তরিকতা ও মানবপ্রেম দিয়ে গোটা থানা এলাকার সবস্তরের মানুষের মন জয় করতে পারে তার এক জলন্ত প্রমাণ তিনি।

পুলিশের প্রতি সাধারণ মানুষের ভিন্ন ধারণা থাকলেও বাসন থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মোঃ আবু সিদ্দিক যোগদানের পর সে ধারণা বদলে দিয়েছে মানুষকে। ব্যতিক্রমধর্মী ও সাধারণ জনগণের আদর্শগত ভিন্মতা মেনে নিয়ে দক্ষতার সঙ্গে কাজ করে থানাতে আসা সাধারণ মানুষের সেবা শতভাগ নিশ্চিত করতে বদ্ধপরিকর। শুধু তাই নয় তিনি সন্ত্রাস, মাদক বিরুদ্ধে ও কঠোর। তিনি সাধারণ মানুষের কাছে আস্থার প্রতীক এবং অপরাধীদের কাছে হয়ে উঠেছেন আতঙ্ক।

বাসন থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) হিসেবে যোগদানের পর এই সল্প সময়ে নিজের সততা,মেধা, বিচক্ষণতা কর্মদক্ষতা ও মানবিকতার মাধ্যমে থানা এলাকার সাধারণ মানুষের মন জয় করতে সক্ষম হয়েছেন। তিনি শ্রেণি ভেদাভেদ না করেই যখন যেখানে যে ধরনের আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন সেখানই তিনি সে ব্যবস্থা নিচ্ছেন। তিনি যে কোনো ঘটনার খবর পাওয়া মাত্রই সাড়া দিচ্ছেন দ্রুত।

বাসনথানা এলাকাকে রেখেছেন যেকোন সময়ের চেয়ে নিরাপদ। রাজনৈতিকসহ বিভিন্ন উদ্বুদ্ধ পরিস্থিতিতে ও কঠোর হাতে আইনশৃঙ্খলা রেখেছেন স্বাভাবিক, সরকারের উন্নয়নমূলক সাফল্যগুলো জনগণের সামনে তুলে ধরতে পুলিশিং কার্যক্রমকে রেখেছেন বেগবান।

বাসন থানায় যোগদানের পর হতে মাদক কারবারীদের আনা গোনা অনেকটা কমে গেছে। প্রতিনিয়ত অভিযানের ফলে অনেক মাদক ব্যবসায়ীও গড ফাদারদের তিনি গ্রেফতার করেছেন। তার ভয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা বর্তমানে গা ঢাকা দিয়েছে।

তিনি বর্তমানে বাসন থানা এলাকার সাধারণ মানুষের চোখে একজন সৎ, আদর্শবান, ন্যায়নিষ্ঠও গরিবের বন্ধুসুলভ পুলিশ অফিসার। তার চোখে ধনি- গরিব, জেলে রিকশা চালক হতে সব শ্রেণিপেশার মানুষ সমান। এ ছাড়া ও একের পর এক ব্যতিক্রমী কাজ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছেন পুলিশের এ কর্মকর্তা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভেসে বেড়ায় তার কর্মকাণ্ডের খ্যাতি জনসাধারণের মুখে মুখে।

Leave a Reply