শার্শার সাতমাইলে দেনার দায়ে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

সেলিম আহম্মেদ,যশোর প্রতিনিধিঃ

যশোরের শার্শায় দেনার দায়ে সিলিং ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেচিয়ে রুহুল আমিন মোল্লা (৪৪) নামে এক ব্যবসায়ী আত্মহত্যা করেছে । 

সোমবার (৮জুলাই) মধ্য রাতে উপজেলার বাগআঁচড়া সাতমাইল এলাকায় নিজ বাড়িতে এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে।

রুহল আমিন মোল্লা শার্শার বাগআঁচড়া সাতমাইল গ্রামের মৃত মুজিবর মোল্লার ছেলে ও বাগআঁচড়া সাতমাইল বাজারের একজন ফ্লাক্সিলোড ও মোবাইল ব্যবসায়ী ছিলেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রুহুল আমিন মোল্লা বাগআঁচড়া সাতমাইল বাজারের ফ্লাক্সিলোড ও মোবাইল ব্যবসায়ী ছিলেন।পাশাপাশি বিকাশের ব্যবসা ছিল তার। উক্ত ব্যবসায়ে লোকসান হয়ে দায় দেনায় জড়িয়ে পড়ে এবং ধার দেনা পরিশোধ করতে বর্তমানে হতাশায় ভুগছিলেন।তাছাড়া রুহুল আমিন দীর্ঘদিন যাবৎ টিবি (যক্ষা) রোগসহ নানা রোগে ভুগছিলেন। রবিবার রাত ১১টার দিকে রুহুল আমিন খাওয়া শেষে তার নিজ শয়ন কক্ষে ঘুমাতে যান।মেয়ে অসু্স্থ থাকায় রুহুল আমিনের স্ত্রী তার মেয়ের শয়ন কক্ষে ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে স্ত্রী ঘুম থেকে উঠে স্বামীকে ডাকতে তার শয়ন কক্ষে গিয়ে দেখে রুহুল আমিন ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেচিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় আছে।এ সময় তার ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এসে রুহুলআমিনের মরদেহ নিচে নামায়। 

শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান,ব্যবসায়ী আত্মহত্যার খবর পেয়ে বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রর ইনচার্জ সহ থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে গিয়েছে। পরিবারের কোন অভিযোগ না থাকায় লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে।এ ব্যাপারে শার্শা থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply