রাসেল’স ভাইপার থেকে যেভাবে নিজেকে রক্ষা করবেন ও যেখানে থাকে এই সাপ

টপ নিউজ ডেক্স

বেশকিছু দিন যাবত রাসেল’স ভাইপার আতঙ্কে সমগ্রঃ বাংলাদেশ। এই মুহুর্তে কিছু গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম মেনে চলতে হবে সবাইকে। যে সমস্ত নিয়ম মেনে চললে নিজেকে এই বিষধর সাপ থেকে বাঁচানো সম্ভব হতে পারে।

আমরা সভাই জানা প্রয়োজন এই গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম গুলো।

# রাসেল’স ভাইপার দেখা মাত্র দ্রুত সরে যান।এই সাপটি মানুষ দেখলে দৌড়ে এসে কামড় বসানোর ওস্তাদ। রাসেল’স ভাইপারসহ যেকোনো সাপে কামড় দিলে যতদ্রুত সম্ভব উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চলে যান।

# রাসেল’স ভাইপার ইঁদুর এবং ব্যাঙ খেয়ে থাকে যে কারনে ইদুরের গর্ত এবং যেসব স্থানে ব্যাঙ বসবাস করে সেসব স্থানে যাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

# বাড়ির আঙ্গিনা, পেছনে বা ঝোপঝাড়ে গেলে অবশ্যই সাথে একটা লাঠি নিয়ে যেতে পারেন সামনে পরিষ্কার যায়গা দেখে পা ফেলুন। সন্দেহ হলে দূরে থেকে লম্বা কিছু একটা দিয়ে নড়া দিয়ে দেখতে পারেন তবে অবশ্যই বেশি দূরত্ব বজায় রাখুন।

# ফসলি জমি এবং জঙ্গলে কোন কাজের উদ্যেশ্যে যাওয়ার প্রয়োজন হলে অবশ্যই বুট/উচু জুতা ব্যবহার করুন।

# রাসেল’স ভাইপার বেশির ভাগ ক্ষেত্রে আমাদের দেশে বাঁশঝাড় ও ধান ক্ষেতে পাওয়া যাচ্ছে। সূতরাং এধরনের জায়গায় যাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

# ঘরের ভেতর শিশুদের নিচে রাখা থেকে বিরত থাকুন। রাতে খাটের উপর থেকে নামার সময় লাইট ব্যবহার করে দেথে নিন। পা ফেলার আগে ঠিক করে দেখে নিন। কোন রুপ সো সো শব্দ হলে সেখান থেকে দ্রুত সরে যান।

# হাঁস মুরগির ঘর বা রাখার স্থান নিয়মিত চেক করুন।সন্দেহ হলে দূর থেকে চেক করতে পারেন।

# সাপে কামড় দিলে ঘাবড়াবেন না।সময় নষ্ট না করে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চলে যান। সেখানেও চিকিৎসা না পেলে জেলায় সরকারি হাসপাতালে জরুরি বিভাগে চলে যান।

# পুকুরে গোসল করতে গেলে সাবধান থাকুন। পারলে উপরে থেকে পানি উঠিয়ে গোসল সেরে ফেলুন।

# রান্নার পূর্বে রান্নাঘরে চুলার আশপাশ ও লাকড়ির গদা ভালো করে চেক করে নিন।

# খড়ের পালা থেকে খড় সংগ্রহের সময় সাবধানে থাকুন। সম্ভব হলে দূরে থেকে সংগ্রহ করুন। ঘাস সংগ্রহের সময় সতর্ক থাকুন। বুট ও উচা জুতা ব্যবহার করুন। পারলে হাতে গ্লাভস ব্যবহার করুন।

নিয়মিত বাড়ির আঙ্গিনা, আশপাশ  ও ঝোপঝাড় পরিষ্কার রাখুন। পরিষ্কার করার সময় অবশ্যই সাবধানে করতে হবে।

Leave a Reply