রাজধানীর গোলাপবাগে সিএনজি ড্রাইভার যাত্রীদের মালামাল নিয়ে পালানোর সময় আটক করেন টিআই আনন্দ

মোঃ খাইরুজ্জামান সজিব বিশেষ প্রতিনিধি ঢাকা

ঈদুল আযহাকে সামনে রেখে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের ওয়ারী জোনের উপ- পুলিশ কমিশনার মোঃ আশরাফ ইমাম তার জোনের আওতাধীন সকল ট্রাফিক ইন্সপেক্টরদের সরকারি নিয়ম অনুযায়ী নির্দেশনা দিয়েছেন পবিত্র ঈদুল আযহার সময় পরিবহন মালিক ড্রাইভার সহ তাহাদের কোনো স্টাফ যাতে অতিরিক্ত ভাড়া না নিতে পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখার জন্য আহবান জানিয়েছেন।

দুর্ঘটনা ও যানজট মুক্ত রাখার জন্য প্রতিনিয়ত ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সহ সকল সদস্যদের জনগণের সেবায় নিয়োজিত থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করেছেন।
গত-১৪ জুর রোজ শুক্রবার সকাল-৯ টার সময় মোঃ আলিফ মাহমুদ (২২) ছাত্র পিতা মোজাম্মেল হক, মুরাদ নগর কুমিল্লা। তিনি ঈদুল আযহার ছুটি পেয়ে গ্রামের বাড়িতে সকলের সাথে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগী করে নেওয়ার জন্য বাড়িতে যাচ্ছেন তার ঢাকা বাসা থেকে সিএনজি যোগে সায়েদাবাদ রওনা হন। সিএনজি ড্রাইভার তাকে সায়েদাবাদে না দিয়ে গোলাপবাগের মেইন রোডের রাস্তার পাশে নেমে যাওয়ার জন্য বলেন। পথের মধ্যে সিএনজি ড্রাইভার এর সাথে এক পর্যায়ে মোঃ আলিম আহমেদের ঝগড়াঝাঁটি হয়।

হঠাৎ করে সিএনজি ড্রাইভার আলিফ এর উপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে সিএনজি থেকে ধাক্কা দিয়ে বের করে দেয়। এমনকি তার সাথে থাকা মালামাল নিয়ে পালিয়ে যেতে চেয়েছিলেন সিএনজি ড্রাইভার। হঠাৎ আলিফ সিএনজির দরজা ধরে অনেক দূরে যেতে থাকে ঝুলে। এই বিষয়টি পথ চারীরা লক্ষ্য করে সিএনজি ড্রাইভারকে আটকে আলিফের মালামাল উদ্ধার করে দেন। এক পর্যায়ে পথচারীরা ট্রাফিক ওয়ারী জোনের গোলাপবাগের একটি অংশের শহর যানবাহন ইন্সপেক্টর আনন্দর কাছে নিয়ে আসেন। পরবর্তীতে শহর যানবাহন ইন্সপেক্টর আনন্দ এই ড্রাইভার যার নাম আব্দুল হক গাড়াী নাম্বার ঢাকা মেট্রো-থ -১৬-১৩-২৫ তাকে যাত্রাবাড়ী থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেন।

উল্লেখ্য বিষয় ট্রাফিকের শহর যানবাহন ইন্সপেক্টর আনন্দ গনমাধ্যম কে জানান আমরা ঈদকে সামনে রেখে সর্ব ক্ষনিক জনসাধারণের জানমাল দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা করার জন্য প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছি। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের ওয়ারী জোনের সুযোগ্য উপ- পুলিশ কমিশনার মোঃ আশরাফ ইমাম স্যারের সুদক্ষ দিকনির্দেশনা অনুযায়ী কোনো পরিবহনের মালিক বা স্টাফরা কোনো যাত্রীর কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছে কিনা সেদিকে লক্ষ্য করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কঠোর শাস্তির ব্যাবস্থা করছি। এমনকি ঈদের সময় অনেক যানযট হওয়ার কারণে দুর্ঘটনা যাতে না হয় সেদিকে বিশেষ ভাবে লক্ষ্য রাখছি। আমি আমার চাকুরীর শুরু থেকে একটাই লক্ষ্য যাতে সর্বক্ষণ মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে পারি পরবর্তীতে
গত -১৪ জুন সিএনজি ড্রাইভার আব্দুল হক এর বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ী থানায় একটি জিডি হয়।

Leave a Reply