বাঘায় ৩৭৬ বোতল ফেন্সিডিলসহ সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের ০২ জন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব

আবুল হাশেম রাজশাহী ব্যুরোচীফঃ

রাজশাহীর বাঘা থানাধীন কলিগ্রাম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে আসামী ১। মোছাঃ শামসুন্নাহার
(২৫), স্বামী- ঝন্টু মালিথা, সাং- কলিগ্রাম, ২। মোঃ রুবেল হোসেন (৩২), পিতা- মোঃ ইব্রাহিম হাওলাদার, সাং- আতারপাড়া,
থানা- বাঘা, জেলা-রাজশাহী’কে গ্রেফতার করে এবং জব্দকৃত আলামত ফেন্সিডিল – ৩৭৬ বোতল, মোবাইল – ০২ টি, সীম –
০২ টি উদ্ধার করে ।

র‍্যাব-৫, সিপিএসসির একটি অপারেশন দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, ০১ টি সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের সদস্য অদ্য ০৮/০৭/২০২৪ তারিখ গভীর রাতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে রাজশাহী জেলার বাঘা থানাধীন কলিগ্রাম গ্রামস্থ মাদক ব্যবসায়ী মোঃ ঝন্টু মালিথা এর আমবাগানে অবৈধ মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল
বিক্রয়ের উদ্দেশ্য অবস্থান করছে। এরইপ্রেক্ষিতে র‍্যাবের গোয়েন্দা দল উক্ত আসামীদের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ শুরু করে এবংএকটি চৌকস আভিযানিক দল গভীর রাতে অভিযান পরিচালনা করে ৩৭৬ বোতল অবৈধ মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিলসহ ০২ জন
আসামিকে আটক করে এবং ০২ জন (পলাতক আসামী ৩। রানা গোপী (৩৫), পিতা-ওমর আলী, মাতা-শেফালী বেগম,
সাং-দক্ষিণ হাজিরাথা বাংলা বাজার, থানা-দৌলতপুর, জেলা-কুষ্টিয়া, ৪। মোঃ ঝন্টু মালিথা (৩৭), পিতা- মোঃ এলা বক্স
সাং-কলিগ্রাম, থানা- বাঘা, জেলা-রাজশাহী) কৌশলে রাতের আধারে পালিয়ে যায় ।

ধৃত আসামীদ্বয় ও পলাতক আসামীদ্বয় এলাকার কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী। ধৃত ০১নং আসামী ও পলাতক ০৪নং
আসামী সম্পর্কে স্বামী-স্ত্রী। তারা পারিবারিকভাবে দীর্ঘদিন যাবত অবৈধ মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত এবং তার স্বামী বাঘা থানার কুখ্যাত মাদক সম্রাট ও শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার নামে ইতিপূর্বে মাদক মামলা, মারামারিসহ সর্বমোট ১৪ টি মামলা
রয়েছে। পলাতক ০৩নং আসামীও এলাকার কুখ্যাত সন্ত্রাসী ও মাদক ব্যবসায়ী। তার নামেও ইতিপূর্বে আরো ১২ টি অস্ত্র,
মাদক ও মারামারিসহ অন্যান্য মামলা রয়েছে। তারা দীর্ঘদিন যাবত পরস্পর যোগসাজসে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ
ফাঁকি দিয়ে অবৈধ মাদক ফেন্সিডিল পাচার করে আসছিল এবং তারা একটি সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের সক্রীয় সদস্য।
আসামীদের বাড়ী সীমান্তবর্তী এলাকাতে হওয়ায় সীমান্তবর্তী অজ্ঞাত স্থান হতে অবৈধ মাদকদ্রব্য ফেন্সিডিল সংগ্রহ করে
রাজশাহীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রয় ও সরবরাহ করে থাকে ।

উপরোক্ত ঘটনায় রাজশাহী জেলার বাঘা থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজুর কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Leave a Reply