চাঁদা না পেয়ে মুসলিম দুই ভাইকে প’রি’ক’ল্পি’ত ভাবে হত্যা করা হয়েছিল

টপ নিউজ প্রতিদিন ডেক্স

ম’ন্দি’রে আ’গু’ন নয়, মূলত চাঁদা না দেওয়ায় তাদেরকে প’রি’ক’ল্পি’ত ভাবে হত্যা করা হয়েছিল
২৮৫ ভোটারের গ্রাম কৃষ্ণপুর। ৬৫ পরিবারের বসবাস। তারা সবাই স’না’ত’ন ধ’র্মা’ব’ল’ম্বী। আশপাশের পাঁচ গ্রাম নিয়ে পঞ্চপল্লী। ১০ কিলোমিটারের মধ্যে কোনো মু’স’লি’ম পরিবার নেই। স্কুলের পাশেই বারোয়ারি কা’লী’ম’ন্দি’র। এবং শ্রমিকদের সবাই ছিলো মু’স’লি’ম।

নি’হ’তে’র পরিবার বলছে, শৌচাগার নির্মাণকাজ শুরু করার পর থেকেই স্থানীয় ইউপি সদস্য অজিৎ কুমার সরকার ওই কাজে নানাভাবে বাধা সৃষ্টি করেন। গত ঈদের আগে অজিতের লোকজন নির্মাণ কাজের স্থলে গিয়ে ন’গ’দ টাকা চাঁদা দা*বি করে। চাঁদা না দিলে মা’র’ধ’রে’রও হু’ম’কি দেন। পরে নির্মাণ কাজের রড নিয়ে যেতে গেলে এতে বাধা দেন শ্রমিক (ঘ’ট’না’স্থ’লে নি’হ’ত) আশরাফুল খান।

পরে ঐ যুবকরা উ’ত্তে’জি’ত হয়ে আশরাফুল সহ অন্যান্য শ্রমিকদের প্রা’ণ’না’শের হু’ম’কি দিয়ে চলে যান। পরে পুরো ঘ’ট’না’টি আশরাফুল মুঠোফোনে তার বাবা মো: শাহজাহান খানকে বিষয়টি জানান। ভয়ে শাহজাহান খান তার দুই ছেলেকে পঞ্চপল্লী থেকে বাড়ি ফিরিয়ে নেন। পঞ্চপল্লীতে কাজে যেতে বারণ করেন। তবে ঈদের পরে সাব-ঠিকাদার জলিল শেখের অনুরোধে আবার কাজে যোগ দেয় দুই সহোদর আশরাফুল ও আরশাদুল। প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আ’গু’নের সূত্রপাত কীভাবে হলো তা এখনো তারা নিশ্চিত জানেন না। আ’গু’ন নেভানোর কাজে শ্রমিকরাও সহায়তা করেন।

পরে কয়েকজন উ’ত্তে’জি’ত জনতা স্কুলের নির্মাণ শ্রমিকদের স’ন্দে’হ করা শুরু করে। মানবজমিন টিম ঘ’ট’না’স্থ’লে গিয়ে দেখতে পায় মূর্তির ২ ফুট দূরে প্রদীপ পড়ে ছিলো। ঘ’ট’না’স্থ’লে উপস্থিত ১নং ওয়ার্ড গ্রাম পুলিশ সদস্য অমৃত কুমার বসু বলেন, বিনয় সাহা মূলহোতা। সে এখানে কেন আসলো? তাকে কে এখানে ফোন করে আনলো? সে স’ন্দে’হ’জ’ন’ক ব্যক্তি। তার চ’রি’ত্রই ভালো না। সে ধ’র্মী’য় উ’স্কা’নি’মূ’ল’ক কা’জ’ক’র্ম করে। সে ঘ’ট’না’র সময় নে’তৃ’ত্ব দিয়েছে। মেম্বার চেয়ারম্যানের সঙ্গে সেও রুমের ভেতরে ছিল।

তার ওখানে কাজ কি? ২নং ওয়ার্ড গ্রাম পুলিশ সদস্য সুজিত অধিকারী বলেন, ঘ’ট’না’র সময় অসিম বিশ্বাসের হাতে গো’ড়া’লি ছিল। সে খুব উ’ত্তে’জি’ত ছিল। গোবিন্দ নামের ছেলেটি মধুখালী থা’না’র ওসির সঙ্গে অনেক বা’ক’বি’ত’ণ্ডা করেছে। গোবিন্দ এলাকায় তরুণদের মধ্যে নে’তৃৃ’ত্ব দেয়।

Leave a Reply