গাইবান্ধায় ভুমিহীন ও গৃহহীনদের মধ্যে ৫ম পর্যায়ের ২য় ধাপে জমিসহ গৃহ হস্তান্তর কার্যক্রমের উদ্বোধন

মোঃ মিঠু মিয়া গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি

গৃহহীন ও ভূমিহীন মানুষেরা আজ ৫র্ম পর্যায়ের (২য় বাপ) প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের মধ্যে গাইবান্ধার ৪টি উপজেলায় ৪০৫ টি ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় জরাজীর্ণ ব্যারাক প্রতিস্থাপন করে একক গৃহ নির্মাণের মাধ্যমে ২২৫টিসহ মোট ৬৩০টি পরিবারকে জমি ও ঘরের কবুলিয়ত, নামজারীর কাগজ সহ জমি ও গৃহ হস্তান্তর করা হয়।

একইদিনে প্রধানমন্ত্রী গাইবান্ধা জেলাকে (ক)শ্রেণির ভূমিহীন ও সাঘাটা ও ফুলছড়ি উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত উপজেলা ঘোষণা করেন। ইতোমধ্যে গোবিন্দগঞ্জ ও সাদুল্লাপুর, পলাশবাড়ী, গাইবান্ধ সদর ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলাকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত উপজেলা হিসেবে ঘোষণা করা হয়। এ উপলক্ষে গাইবান্ধা সদর উপজেলা পরিষদের আয়োজনে আজ বুধবার সকালে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে উপকারভোগীদের মাঝে জমি ও গৃহ হস্তান্তর অনুষ্ঠানে গণভবন থেকে সরাসরি সম্প্রচার প্রজেক্টরের মাধ্যমে বক্তব্য রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন।


গাইবান্ধা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহমুদ আল হাসান সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দেওয়ান মওদুদ আহমেদের. উপজেলার চেয়ারম্যান আমিনুজ্জামান রিংকু . জনপ্রতিনিধি ও গণমাধ্যম কর্মীসহ.সরকারি কর্মকতা বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আওতাধীন আশ্রায়ন-২ প্রকল্পের আওতায় সারাদেশে সমাজের গৃহহীন ও ভ‚মিহীন ৩য় পর্যায়ে (অবশিষ্ট) ও ৪র্থ পর্যায়ের (১ম ধাপ) ৩৯ হাজার ৩৬৫ জন মানুষ জমিসহ প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে পাকা ঘর পান।

Leave a Reply